শুক্রবারের দোয়া কবুলের আমল এর মধ্যে ৫টি অন্যতম আমল

শুক্রবারের দোয়া কবুলের আমল

শুক্রবারের দোয়া কবুলের আমল গুলো যদি আমরা সবাই করতে পারি তাহলে আমাদের দোয়া কবুল হওয়ার চান্স বেড়ে যায়। আমরা মহান আল্লাহর কাছে কোনো কিছু চাওয়ার মাধ্যম এর মধ্যে অন্যতম একটি মাদ্যম হলো দোয়া। আমরা সবাই অনেকেই অনেক কিছুই চাই কিন্তু আমাদ্র চাওয়া গুলো পূরণ হয়না তার কারণ হলো মহান আল্লাহ আমাদের দোয়া কবুল করেন না। আমরা আমাদের দোয়া কবুল করানোর জন্য শুক্রবার এ কয়েকটি আমল করতে পারি । তার মধ্যে অন্যতম ৫ টি আমল নিয়ে আলোচনা করা হলো। 

শুক্রবারের দোয়া কবুলের আমল

শুক্রবারের দোয়া কবুলের আমল বলতে কি বুঝায়? 

শুক্রবারের দোয়া কবুলের আমল বলতে বুঝায় এমন কিছু বিশেষ কাজ বা ইবাদত যা শুক্রবার এ করা হয়। হতে পারে সেটি নফল রোযা রাখা, কোরআন এর বিশেষ কিছু আয়াত বা সূরা তেলাওয়াত করা, বিশেষ নফল নামাজ আদায় করে, বিশেষ জিকির আজগার করা বা তাসবিহ পাঠ করা আরো অনেক কিছু। এই বিশেষ কিছু কাজ বা ইবাদত করার মাধ্যমে আমরা মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে কোনো কিছু চাইতে পারি এবং অন্যান্য দিনের তুলনায় এই দিনে আমাদের দোয়া কবুল হওয়ার  বেশি সম্ভাবনা বেড়ে যায়। মহান আল্লাহ তায়ালা চাইলেই আমাদের মনের আশা পুরণ করতে পারেন। কারণ তিনিই আমাদের একমাএ মাধ্যম যে আমাদের সব ধরনের আশা পূরন করার মতো ক্ষমতা রাখেন। আমাদের অন্য কারোর মুখাপেক্ষি না হয়ে সুধুমাএ তার মুখাপেক্ষি হওয়া জরুরি। তিনি ছাড়া আর কেউ আমাদের মনের আশা পূরণ করতে পারবেনা বা পূরণ করার ক্ষমতা ও রাখেনা। 

শুক্রবারের দোয়া কবুলের আমল

শুক্রবারের দোয়া কবুলের আমল এর মধ্যে ৫টি অন্যতম আমল।

আমরা কিভাবে মহান আল্লাহর তায়ালার কাছে চাইবো তার শিক্ষা তিনি কোরআন শরিফ এবং রাসূল (সঃ) এর মাধ্যমে শিখিয়েছেন। আমরা মহান আল্লাহর তায়ালার কাছে যেকোনো মাধ্যমে বা যেকোনো অবস্তায় চাইতে পারি। যাকে আমরা দোয়া নামে অবিহিত করি। মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে দোয়া করার দিন গুলোর মধ্যে অন্যতম একটি দিন হলো শুক্রবার। এই দিনে কিছু আমল করার মাধ্যমে আমাদের দোয়া কবুল করানোর সম্ভাবনা বাড়িয়ে নিতে পারি। নিচে শুক্রবারের দোয়া কবুলের আমল এর মধ্যে অন্যতম ৫টি আমল নিয়ে আলোচনা করা হলোঃ 

  1. শুক্রবার এর দিনে নফল রোযা রেখে মহান আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করা বা তার কাছে কিছু চাওয়া। 
  2. ফজর এর নামাজ এর পর কিছু বিশেষ কিছু তাসবিহ পাঠ করে দোয়া করা।
  3. জুম্মার নামাজের পর সূরা কাহাফ পাঠ করে প্রার্থনা করা। 
  4. বিশেষ করে আসরের নামাজ এর পর মহান আল্লাহর কাছে দোয়া করা। এবং
  5. ওইদিন কোনো গরিব এবং অসহায় মানুষ দের কে সহায়তা করে মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে প্রার্থনা করা।

উপরের মাধ্যম গুলার মাধ্যমে যে দোয়া কবুল হবে তা নিশ্চিত। কিন্তু দোয়া কবুল করানোর জন্য আমাদের কে অবশ্যই হালাল হারাম বিবেচনা করতে হবে। একজন মানুষ সুদ,ঘোষ, যিনা ,ব্যাবিচার এবং দুর্নীতি করে উপরের আমল গুলা করে মহান আল্লাহর কাছে দোয়া করে তাহলে কিন্তু তার দোয়া কবুল সম্ভাবনা অনেক কম। তাই আমাদের উচিত সব ধরনের গুনাহ থেকে বেচে মহান আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করা এবং উপরের আমল গুলা করা। 

উপসংহার

চাওয়াটা যদি মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে হয় তাহলে পাওয়াটা নিশ্চিত হয়ে যায়। তবে মহান আল্লাহ কাছে চাওয়ার মতো চাইতে হবে এবং চাওয়ার জন্য কিছু নিয়ম অনুসরণ করতে হবে। বিশেষ কিছু দিন রয়েছে যেদিন চাইলে মহান আল্লাহর কাছে চাইলে চাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। তার মধ্যে অন্যতম দিন হলো শুক্রবার। শুক্রবারের দোয়া কবুলের আমল  আলোচনা করা হয়েচে। হয়তো মহান আল্লাহ তায়ালা আপনার দোয়া কবুল করতে পারেন যদি আপনি উপরের আমল গুলো সঠিকভাবে করতে পারেন। ধন্যবাদ ভালো থাকবেন। 

5 Comments on “শুক্রবারের দোয়া কবুলের আমল এর মধ্যে ৫টি অন্যতম আমল”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *